সারোয়ার হোসেন, তানোর:

আবারো রাজশাহীর তানোর থানার একজন পুলিশ কনস্টেবলসহ দুইজন নতুন করে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। আক্রান্ত অপরজন তানোর থানার পরিচ্ছন্নতা কর্মী।

সোমবার (৪ মে) তাদের নমুনা পরীক্ষায় করোনা পজিটিভ আসে। রাজশাহীতে এই প্রথম কোনো পুলিশ সদস্য করোনায় আক্রান্ত হলেন। জেলায় এখন করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে ১৭ জনে দাঁড়ালো।

রাজশাহী মেডিকেল কলেজের (রামেক) করোনা ল্যাব সূত্রে জানা গেছে, এ দিন মোট পাঁচজনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এদের মধ্যে পাবনার দুইজন এবং নাটোরের একজন। অন্য দুইজন রাজশাহীর তানোরের। ল্যাবে আরও ২১৯ জনের নমুনা এসেছে পরীক্ষা জন্য। দুই শিফটে এখানে এক দিনে ১৮৮ জনের নমুনা পরীক্ষা সম্ভব।

করোনা শনাক্ত হওয়ার বিষয়ে তানোর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. রোজীয়ারা খাতুন বলেন, ‘গত ৩ এপ্রিল তানোর থানায় গিয়ে আমরা এ দুজনের নমুনা সংগ্রহ করি। পরে নমুনা রামেকের ল্যাবে পাঠানো হয়। আজ সোমবার (৪মে) বিকেলে জেলার সিভিল সার্জন ডা. এনামুল হক ওই দু’জনের করোনা পজিটিভ আসার তথ্য জানিয়েছেন।’

তানোর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রাকিবুল হাসান বলেন, ‘তারা দু’জন থানার স্টাফ। একজন কনস্টেবল, অন্যজন পরিচ্ছন্নতাকর্মী। তাদের করোনা পজিটিভ এসেছে বলে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা আমাকে ফোনে জানিয়েছেন। বিষয়টি নিয়ে পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে।’

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুশান্ত কুমার মাহাতো বলেন, ‘থানার দু’জন করোনা পজিটিভ আসার বিষয়টি অবগত হয়েছি। দ্রুত তাদেরকে আইসোলেশনে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে। একই সাথে আক্রান্তদের সংস্পর্শে আসাদের চিহ্নিত করে কোয়ারেনটাইনে পাঠানো হবে। পর্যায়ক্রমে তাদের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করা হবে।’

এর আগে গত ২৮ এপ্রিল তানোর প্রথম করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করা হয়। আক্রান্ত ওই যুবক (১৮) উপজেলার বাঁধাইড় ইউনিয়নের হাঁপানিয়া হাপানিয়া গ্রামের বাসিন্দা। তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া সীমান্ত থেকে সম্প্রতি বাড়িতে ফেরেন। রাজশাহী গত ১২ এপ্রিল প্রথম করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়।

সোমবার পর্যন্ত জেলায় ১৭ জন শনাক্ত হলেন। এদের মধ্যে একজন মারা গেছেন। তার বাড়ি বাঘা উপজেলায়। মৃত্যুর আগে তার করোনা পজিটিভ আসে। কিন্তু মৃত্যুর পর নমুনা পরীক্ষায় তার করোনা রিপোর্ট আসে নেগেটিভ। তবে করোনাভাইরাসের কারণেই তার মৃত্যু হয়েছে বলে রেকর্ড করছে স্বাস্থ্য বিভাগ।

 86 total views

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here