আওয়ামী লীগ নিয়ে রাব্বানী মামুনের ইদুর বিড়াল খেলা

0
81

সারোয়ার হোসেন, রাজশাহী প্রতিনিধি:

প্রায় দীর্ঘ ২০বছর ধরে চলছে রাজশাহীর তানোর উপজেলা আওয়ামী লীগের সংগঠন নিয়ে মেয়র গোলাম রাব্বানী ও আব্দুল্লাহ আল মামুনের মধ্যে ইদুর বিড়াল খেলা বলে অভিযোগ উঠেছে। এতে করে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম রাব্বানীর গুছানো রাজনৈতিক মাঠ নষ্ট কারি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মামুনের সাথে ফের রাব্বানীর সক্ষতার এমন চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ফাঁস হয়ে পড়লে উপজেলার জনসাধারণের মধ্যে ও রাজনৈতিক অঙ্গনে দেখা দিয়েছে সমালোচনার ঝড়। বইছে রুচি অরুচি কর মুখরোচক টকশো। যার ফলে রাব্বানী মামুনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য দলের হাইকমান্ডের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তৃণমূল আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী সমর্থকরা। তানোর উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, তানোর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মেয়র গোলাম রাব্বানী ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মামুনের দীর্ঘ বছর ধরে চলে আশা দলের নেতাকর্মী নিয়ে জাতশত্রুতা করে আবারো এক কাতারে সামিল হয়ে এমপি ওমর ফারুক চৌধুরীর বিরুদ্ধে অপপ্রচার করতে মাঠে সঙ্গ বন্ধ হওয়া। যা কিছুতেই মেনে নিতে পারছেন না তৃণমূল আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী সমর্থকরা। তানোর পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ প্রদীপ সরকার বলেন, আজ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক দূর অস্থার জন্য একমাত্র দায়ী রাব্বানী ও মামুন। কারণ হিসেবে তিনি বলেন, পরপর দুইবার উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে এমপি ওমর ফারুক চৌধুরী গোলাম রাব্বানীকে আওয়ামী লীগ দলীয় মনোনয়ন (নৌকা) প্রতীক দিয়ে প্রার্থী করা হলেও দুইবারই তাকে ফেল করাতে দলের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে সতন্ত্র প্রার্থী হয়ে নির্বাচন করেছেন আব্দুল্লাহ আল মামুন। যে কারণে বার বার বিএনপির প্রার্থীর কাছে পরাজয় স্বীকার করতে হয়েছে আওয়ামী লীগ কে। তানোরে আওয়ামী লীগ যখনি শক্তিশালী হতে শুরু করে তখনি সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের শুরু হয় ইদুর বিড়াল খেলা। আর তারা কেউ কাউকে ছাড় না দিয়ে মাঠে খেলতে গিয়ে একটা দল ভেঙ্গে করছেন দুই টীম। যার জন্য তানোরে যখনই আওয়ামী লীগ একটু শক্তিশালী হয়ে উঠতে শুরু করে তখনি শুরু হয়ে যার তাদের প্রভাব বিস্তারের লড়াই। অথচ যে মামুনের জন্য গোলাম রাব্বানীর সাজানো রাজনৈতিক ক্যারিয়ার ঢংশো হয়েছে আজ তার সাথে হাত মিলিয়ে এমপি ওমর ফারুক চৌধুরীর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে অপপ্রচার করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে মেয়র গোলাম রাব্বানী বলে তিনি আরো বলেন, যতই ষড়যন্ত্র করুক তারা কোন লাভ নেই। তানোরের মানুষ বুঝে গেছে রাব্বানী ও মামুনের চরিত্র সম্পর্কে। তারা যে নিজের সার্থের জন্য সব করতে পারে তা দুই জনের একত্রিত হয়ে এমপির বিরুদ্ধে অপপ্রচার করতে মাঠে নামায় জনসাধারণের মধ্যে পষ্ট হয়ে গেছে। তাই তৃণমূল আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী সমর্থকদের কাছে জনপ্রিয়তা হারিয়ে পাগল হয়ে কখন কি করছে তা ওরা নিজেরাই জানেননা। তানোর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মেয়র গোলাম রাব্বানী ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণসম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মামুনকে একাধিক মুঠো ফোনে কল দিয়েও তারা ফোন রিসিভ না করাই তাদের কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি। তবে তানোরউপজেলাআওয়ামীলীগেরভারপ্রাপ্ত সভাপতি খাদেমুন নবী চৌধুরী বাবু বলেন, বার বার তাদের আওয়ামী লীগ দলীয় সর্বচ্চ সম্মান দেয়া হয়েছে কিন্তু তারা ধরে রাখতে পারনি। আজ যখন এমপি ওমর ফারুক চৌধুরীর নেতৃত্বে তানোর উপজেলা আওয়ামী লীগ একটি শক্তিশালী সংগঠনে রুপান্তর হতে চলেছে ঠিক তখনি আবারো নতুন ফন্দি তুলে রাব্বানী মামুন হাত মিলিয়ে আওয়ামী লীগ বিরোধী কার্যক্রম চালাতে শুরু করেছে। তারা যতই ষড়যন্ত্র করবে ততই জনপ্রিয় হয়ে উঠবে এমপি ওমর ফারুক চৌধুরী বলে তিনি জানান।

 84 total views

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here