“ফটো সাংবাদিক
সাজ্জাত হোসেন”

শিবচর পাচ্চরে একটি আম,কে কেন্দ্র করে।
মৃত,পিতা:মরনজনের
ছেলে,স্যামল(৩৫) নামক এক যুবক এবং তার সাথে কল্পনা (৩৭)নামে একজন মিলিত হয়ে। মিলো রানী দাস(৫৫) নামে একজন মায়ের উপর সন্তাসি হামলা চালায়।
ঘটনাটি ঘটে ২০/৬/২০২০ রাএি ৭,টার দিকে।
সন্তাসি স্যামলের সাথে থাকা কল্পনা সহ আরো যারা ছিলেন। তারা সবাই মিলিত হয়ে।
মিলো রানী দাস এর উপর লোহা জাতিয় সাফোল দিয়ে তার মাথায় আঘাত করে।
মাথায় আঘাত লাগাড় কারনে অনেক রক্ত ক্ষরন হয়। তা দেখে পরিবারের সদস্যরা ইস্থানীয়দের ডাকার জন্য চিৎকার করেন।
বাড়িতে চিৎকারের সব্দ পেয়ে ইস্থানীয়রা ছুটে আসে । ইস্থানীয়রা বাড়িতে পৌছানোর আগ মূহর্তে সন্তাসি স্যামল ও কল্পনা সহ সকল সন্তাসিরা ঘটনা ইস্থান থেকে পালিয়ে জায়। তখন ইস্থানীয়রা আহত মিলো রানী দাস,কে ফরিদপুর মেডিকেল এ চিকিৎসার জন্য পাঠিয়ে দেন। আহত,ব্যাক্তিকে মেডিকেলে পাঠানোর পরে আহত মিলো রানীর স্বামি, দিপক কুমার দাস ইস্থানীয়দের নিয়ে শিবচর মডেল থানায় সন্তাসিদের বিরুদ্ধে একটি মামলা করার জন্য যায়। জাওয়ার পরে শিবচর থানায় সন্তাসিদের বিরুদ্ধে কোনো মামলা নিতে রাজি হয় না। রাজি না হওয়ার কারনে আহত পরিবার শিবচর থানার এস,আই শাহাদাত হোসেনের কাছে ঘটনা খুলে বলেন। তার পরে শিবচর থানার শাহাদাত দারগা আহত মিলো রানীর, স্বামী দিপক কুমার দাসের কাছ থেকে ৫,০০০ হাজার টাকা নেয়। শাহাদাত হোসেন এটা বলে টাকা গুলো নেয় যে, তিনি সঠিক তদন্ত করে সন্তাসিদের আইনের আওতায় এনে সঠিক বিচার পাওয়ার আবেদন কোরবেন। শাহাদাত দারগা ৫,০০০ টাকা নেওয়ার পরে আর আহত পরিবারের সাথে কোনো প্রকার যোগাযোগ করেন নাই।
আহত পরিবারের কোনো ব্যাক্তি থানায় আসলে শাহাদাত দারগা এটা,ওটা,বলে এড়িয়ে যায়। ঘটনাটি ঘটে ২০/৬/২০২০ তারিখ এ আজ ২৬/৬/২০২০ তারিখ হয়ে জায় আইন কিন্তু সন্তাসিদের বিরুদ্ধে কোনো প্রকার একশন নিচ্ছে না । সন্তাসিরা কিন্তু এখনো বাইরে ঘুরাঘুরি কোরছেন আইন কিন্তু সন্তাসিদের বিরুদ্ধে কোনো প্রকার ব্যাবস্থা নিচ্ছে না। তাই আহত পরিবার টি আইন প্রশাসনের দৃষ্টি আর্কশন করে আইনিও সহযোগিতা কামনা কোরছে।।। ।।।।।।।

 26 total views

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here