মোঃ ছিদ্দিক ভোলা প্রতিনিধি

মহামারী ভাইরাস করোনার (কোভিট-১৯) প্রভাবে খুব আতঙ্কের মধ্য দিয়ে জীবনযাপন করছে সব শ্রেনী পেশার মানুষ। বন্ধ হয়ে যাচ্ছে সকল আয়ের পথ। নেই আগের মতো আয় রোজগার। এরই মধ্যে শূন্যের কোঠায় এসে পৌঁছেছে ইলিশের সংখ্যা। ইলিশ শূন্য মেঘনায় সারাদিন জাল পেলেও মিলছেনা কাঙ্ক্ষিত ইলিশ।ফলে অনিশ্চয়তায় জীবন কাটাচ্ছে মেঘনার জেলে পল্লীগুলো।

সরেজমিন দৌলতখান জেলে পল্লী ঘুরে দেখা যায়, নদীতে কাঙ্খিত ইলিশ না পাওয়ায় কেউ কেউ বাড়িতে বসে অলস সময় কাটাচ্ছেন, কেউ বা বুনছেন জাল।

জেলে মোঃ আলমগীর, জানান, নদীতে মাছ না থাকায় আমরা অসহায় হয়ে পড়েছি। বিভিন্ন এনজিও থেকে কিস্তি নিয়ে নৌকা জাল কিনেছি। নদীতে মাছ না থাকায় কিস্তি দিতে পারছিনা আমরা। কোথায়ও গিয়ে যে কাজ করবো তাও পারছিনা ভাইরাসের কারনে।

সরকারি বরাদ্দের প্রসঙ্গে জানতে চাইলে তারা বলেন, সরকার আমাদেরকে যে চাউল দেয় তাতে করে ১০ থেকে ১৫ দিন চলে। এতে করে আমরা কিছুটা হলেও উপকৃত হই। তবে চাল শেষ হয়ে গেলে অনিশ্চয়তায় কাটে আমাদের দিন।

বিভিন্ন মাছ ব্যবসায়ীরা বলেন, আমরা জেলেদেরকে দাদন (অগ্রিম টাকা) দিয়ে থাকি। তারা আমাদেরকে মাছ দেয়। কিন্তু নদীতে মাছ কম থাকায় আমাদের ব্যবসায় ধ্বংস নেমেছে।

 25 total views

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here